ময়মনসিংহ - ২৫শে অক্টোবর, ২০২০ || ৯ই কার্তিক, ১৪২৭

শিরোনাম

শেরপুরে মটর সাইকেল কিনে না দেওয়ায় মাকে পেট্রোল দিয়ে পুড়িয়ে হত্যা : ঘাতক ছেলে গ্রেফতার

পেট্রোল দিয়ে পুড়িয়ে হত্যা

মুহাম্মদ আবু হেলাল, শেরপুর প্রতিনিধি: শেরপুরের শ্রীবরদীতে মোটরসাইকেল কিনে না দেওয়ায় হুনুফা বেগম (৩৮) মায়ের শরীরে পেট্রোল ঢেলে আগুনে পুড়িয়ে হত্যার করেছে নিজের গভর্জাত সন্তান। এ নিমর্ম হত্যাকান্ডের অপরাধে পাষণ্ড ছেলে আবু হানিফ (১৭)কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ

১৭ অক্টোবর শনিবার দুপুরে পৌরশহরের তাতিহাটি পশ্চিমপাড়া এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। হুনুফা স্থানীয় সওদাগর আলী সাদার স্ত্রী ও শেরপুর শহরের চকপাঠক এলাকার আলাউদ্দিনের মেয়ে। ওই ঘটনায় হুনুফা বেগমের ভাই দুলাল মিয়া বাদী হয়ে শ্রীবরদী থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। বিকেলে হানিফকে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। ঘটনাটি নিয়ে এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যেকর অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। পুলিশ ও এলাকাবাসীর সূত্রে জানা যায়, হুনুফা বেগমের ৩ ছেলে-মেয়ের মধ্যে নবম শ্রেণিতে পড়ুয়া আবু হানিফ সবার বড়।

মোটরসাইকেল কিনে দেওয়ার জন্য বায়না ধরে আসছিল

সে কিছুদিন যাবত মায়ের কাছে মোটরসাইকেল কিনে দেওয়ার জন্য বায়না ধরে আসছিল। এতে মা হুনুফা বেগম রাজী না হওয়ায় গত রবিবার রাতে হানিফ তার মায়ের শরীরে পেট্রোল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। পরিবারের লোকজন অগ্নিদগ্ধ হুনুফাকে উদ্ধার করে দ্রুত প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, পরে শেরপুর সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে রোগীর অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় কতর্ব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করেন। সেখানেও তার অবস্থা আরো অবনতি ঘটলে দ্রুত তাকে শেখ হাসিনা বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জন ইনস্টিটিউটে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় হুনুফা মৃত্যুেবরণ করেন। এ ব্যাপারে শেরপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) আমিনুল ইসলাম জানান, ওই ঘটনায় নিহতের ছেলে হানিফকে গ্রেফতার করে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। ঘটনার বিষয়ে সুষ্ঠু তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে

এই বিভাগের আরও খবর